কমলগঞ্জে চা বাগান শ্রমিকদের বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ

18

কমলগঞ্জ প্রতিনিধি ::
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের সীমান্তবর্তী ব্যক্তিমালিকানাধীন দলই চা বাগান বন্ধ থাকার পর ১৯ আগষ্ট বাগান চালু নিয়ে ম্যানেজমেন্টের সাথে শ্রমিকদের উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান, চা শ্রমিক নেতাসহ ১৩ জন চা শ্রমিককে আসামী দিয়ে থানায় মামলা করে দলই চা বাগান কতৃপক্ষ। মামলা প্রত্যাহারের প্রতিবাদে ও বাগান খোলে দেওয়ার দাবিতে দলই চা বাগান শ্রমিকরা গতকাল (২৪ আগস্ট) সোমবার বিক্ষোভ মিছিল ও সড়ক অবরোধ করেছে।

ধলই চা বাগন থেকে প্রায় ১৮ কি.মি. দূরে শ্রমিকরা পায়ে হেঁটে মিছিল সহযোগে দুপুরের পর উপজেলায় চৌমুহনায় নারী শ্রমিক গীতা রানী কানুর নেতৃত্বে তিন শতাধিক শ্রমিক সড়ক অবরোধ করে ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। একঘন্টা সড়ক অবরোধের পর তারা উপজেলা প্রশাসনের সম্মুখে অবস্থান নেয়।

নারী চা শ্রমিক নেত্রী গীতা রানী কানুসহ দলই চা বাগান শ্রমিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মামলা দিয়ে দলই চা বাগান মালিক পক্ষ শ্রমিকদের হয়রানি করতে চায়। চা বাগান কর্তৃপক্ষ বেআইনীভাবে গত ২৭ জুলাই বাগান বন্ধ করেছে। এটি কোনমতেই কাম্য নয়। দীর্ঘদিন ধরে চা বাগান শ্রমিকরা অনাহার, অর্ধাহারে দিনযাপনের অভিযোগ তুলে শ্রমিকরা অবিলম্বে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও দলই চা বাগান চালুর দাবি জানান।

  •