বিশ্বনাথের গণধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেফতার

2

নিজস্ব প্রতিবেদক

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার আলোচিত তরুণী গণধর্ষণের ঘটনার ৭৮ দিন পর রাহেল মিয়া (৩৬) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করে পুলিশ।এরআগে বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে স্থানীয় ভূরকী বাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। ওইদিন তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত রাহেল মিয়া উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়নের ইসবপুর গ্রামের আবদুল খালিকের ছেলে।

এর আগে, গত ১ জুলাই রাতে গণধর্ষণের শিকার হয় ইসবপুর গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের পিতৃহারা ওই তরুণী। ঘটনার ১২ দিন পর গত ১৩ জুলাই বিশ্বনাথ থানায় একই গ্রামের মন্নান মিয়ার ছেলে আনোয়ার মিয়া (৪০), রিয়াছদ আলীর ছেলে সুজন মিয়া (৩০) ও মৃত ফজর আলীর ছেলে শায়েস্তাবুর মিয়ার (৩০) নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত দুজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করে ভুক্তভোগী তরুণী।

পরে গত ১৬ জুলাই রাতে ঘটনার মূল হোতা আনোয়ার মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আনোয়ার মিয়াকে ইতিমধ্যে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আদালতে ১৬৪ ধারায় দেওয়া স্বীকারোক্তিতে আনোয়ার জানায়, ওই গণধর্ষণের সঙ্গে রাহেলও জড়িত। সেই প্রেক্ষিতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রাহেলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্বনাথ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) রমাপ্রসাদ চক্রবর্তী। তিনি বলেন, পুলিশ গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রাহেলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার ধর্ষণ মালায় গ্রেফতার দেখিয়ে সিলেটের আদালতে নেয়া হবে তাকে।