অস্ত্র কেনার দরকার নেই , প্রতিরক্ষায় স্বাবলম্বী ইরান

3

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ইরান দাবি করেছে প্রতিরক্ষায় স্বাবলম্বী, তাদের অস্ত্র কেনার দরকার নেই। দেশটির ওপর জাতিসংঘ আরোপিত অস্ত্র নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হতে না হতেই রোববার এমন দাবি করেছে তেহরান।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে বলা হয়, ইরানের প্রতিরক্ষা মতাদর্শ দেশটির জনগণ ও দেশীয় সক্ষমতার ওপর নির্ভর করে গড়ে উঠেছে….অপ্রচলিত অস্ত্র, গণবিধ্বংসী অস্ত্র ও প্রচলিত অস্ত্র কেনার তাগিদ ইরানি প্রতিরক্ষা মতাদর্শে নেই।

২০০৭ সালে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ইরানের ওপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা দেয়। এই নিষেধাজ্ঞা রোববার শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তির আওতায় তেহরানের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ বন্ধের বিনিময়ে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা শিথিলের এ আশ্বাস দিয়েছিল শক্তিধর ছয়টি দেশ রাশিয়া, চীন, জার্মানি, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্র পরমাণু চুক্তি থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়। এরপর থেকে তেহরান এবং ওয়াশিংটনের মধ্যে উত্তেজনা বাড়তে থাকে।

জাতিসংঘের এ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ বাড়াতে তৎপরতা চালিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র। তবে বিরোধিতা উপেক্ষা করেই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ আর বাড়ানো হয়নি।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ এক টুইটে বলেন, আজ বিশ্বের সঙ্গে ইরানের প্রতিরক্ষা সহযোগিতা স্বাভাবিক হয়েছে, তা আমাদের এ অঞ্চলের বহুপাক্ষিকতা, শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য একটি বিজয়।