মহাসপ্তমীতে করোনা মুক্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা

12

সবুজ সিলেট ডেস্ক::
ঢাকেশ্বরী মন্দির প্রাঙ্গণ
শারদীয় দুর্গোৎসবের আজ শুক্রবার মহাসপ্তমী। এদিন দুপুর ১২টা ১ মিনিটে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে করোনা মহামারি থেকে মুক্তি এবং সবার সুস্থতা কামনা করে বিশেষ প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে শুক্রবার সকাল সোয়া আটটায় শুরু হয় নবপত্রিকা প্রবেশ ও সপ্তমীবিহিত পূজা। পরে পৌনে ১১টায় ভক্তরা অঞ্জলি দেন। তবে করোনা মহামারির কারণে এবার অঞ্জলি দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে সরাসরি টেলিভিশনে এবং ফেসবুকে।

ভক্তদের বাসায় বসেই অঞ্জলি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ। তাছাড়া দুপুর ১২টা ১ মিনিটে করোনা মুক্তি এবং দেশ-জাতি ও বিশ্ব শান্তি কামনায় হবে বিশেষ প্রার্থনা। এদিকে সারাদেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে দেবী দূর্গার সপ্তমী বিহিত পূজা।

জগতে আসুরিক শক্তির পরাভব ও সত্য সুন্দও চির কল্যানে সবার অন্তরে শান্তি ও কল্যান বয়ে আসুক। এই প্রত্যাশায় নেত্রকোনায় ভোরে সুর্য উঠার আগে থেকে বৈরী আবহাওয়ায় নানান আয়োজনের মধ্য মন্ডপে মন্ডপে হিন্দু সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা মহাসপ্তমী চলছে।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে সাত্ত্বিক পূজায় সীমাবদ্ধ রেখে এবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে দুর্গাপূজা। করোনা অতিমারীর কারণে উৎসব সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো পরিহার করে শুধুমাত্র সাত্ত্বিক ভাবেই পূজা অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত হয় এবার। প্রদান করা হয় বেশ কিছু নির্দেশনা।

করোনা মহামারীর কারণে সংক্রমণ এড়াতে নির্দেশনানুযায়ী এবছর বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। উৎসব সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো পরিহার করে সাত্ত্বিক পূজায় সীমাবদ্ধ রাখতে হবে বিধায় এবারের দুর্গোৎসবকে শুধু ‘দুর্গাপূজা’ হিসেবে অভিহিত করেছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ।

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের এবং সরকার নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি পরিপূর্ণভাবে মেনে ধর্মীয় বিধিবিধান সমুন্নত রেখে দুর্গাপূজার আয়োজন ও অংশগ্রহণের জন্য সনাতন সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পরিষদের নেতৃবৃন্দ। তারা বলেছেন, এই বছরের পুজো অন্যান্য বছরের মত নয়। করোনা আতঙ্কের আবহেই এবার দেবীপক্ষের সূচনা হয়া। আর মহামারীর দুর্যোগ মাথায় নিয়েই এবার হচ্ছে মাতৃ বন্দনা।

সবুজ সিলেট/২৩ অক্টোবর/ শামছুন নাহার রিমু