নবীগঞ্জে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও বাসচালকের মধ্যে সংঘর্ষ, বাস চলাচল বন্ধ

8

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার নবীগঞ্জ-হবিগঞ্জ সড়কের ইমামবাড়ী বাজারে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও বাসচালকের মধ্যে সংঘর্ষে আহত হয়েছেন একজন। এ ঘটনার পর ওই এলাকায় বাস চলাচল বন্ধ রেখেছেন ক্ষুব্ধ চালক ও শ্রমিকরা।

আজ বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার কালিয়ার ভাঙ্গা ইউনিয়নের ইমামবাড়ী বাজারে এ ঘটনা ঘটেছে। আহত বাসচালকের নাম খোকন দাশ (৫০)। তিনি নতুন বাজারের মুরাদপুর গ্রামের মৃত কিরু দাশের পুত্র।

জানা যায়, পূর্ববিরোধের জের ধরে ইমামবাড়ী বাজারে শরীফের নেতৃত্বে একদল সিএনজিচালিত অটোরিকশার চালক বাসের সামনে অটোরিকশা দাঁড় করিয়ে বাস থামান। কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে নিয়ে অটোরিকশার চালক বাসচালকের উপর হামলা চালান। হামলায় গুরুতর আহত হন বাসচালক। স্থানীয় লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। ঘটনার খবর পেয়ে ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলামের নির্দেশনায় এসআই মহিউদ্দিন রতন ও এসআই হানিফের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম জানান, ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছেন। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী এক বাসযাত্রী জানান, হঠাৎ করে অটোরিকশার চালকরা অটোরিকশা নিয়ে বাসের সামনে এসে দাঁড় করান। এ নিয়ে বাসচালক ও অটোরিকশাচালকের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে অটোরিকশাচালক বাসচালকের উপর হামলা চালান।

ইমামবাড়ী বাজার ব্যবসায়ী সমিতির যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান বলেন, নবীগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) ঘটনাস্থলে আসার পর আমরা চেয়েছিলাম সামাজিকভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে। কিন্তু ওসি (তদন্ত) বাস মালিক সমিতির সাথে যোগাযোগ করলে তারা বলেছেন আমরা পরে জানাব।

এ ব্যাপারে বাস মালিক সমিতির যুগ্ম-আহ্বায়ক আব্দুল বাছিত মিয়া জানান, শ্রমিকরা বাস চলাচল বন্ধ করে রেখেছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নবীগঞ্জ মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের সভাপতি ইয়াওর মিয়া বলেন, এখনও এটার কোনো সমাধান হয়নি। বাস শ্রমিকরা ধর্মঘট ডেকেছে, বাস বন্ধ রয়েছে। উপযুক্ত বিচার না পাওয়া পর্যন্ত বাস চলবে না। পরিস্থিতি থমথমে রয়েছে। যেকোনো সময় বড় ধরণের ঘটনা ঘটতে পারে।