দিরাইয়ে উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

3

দিরাই প্রতিনিধি :: দিরাইয়ে উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির ৫ম দ্বি- মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৯অক্টোবর) দুপুরে দিরাই উপজেলা পরিষদ সম্মেলন কক্ষে উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির ৫ম দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়। দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির সভাপতি মোঃ সফি উল্লাহর সভাপতিত্বে ও কালেক্টিভ ইম্প্যাক্ট ফর নিউট্রিশন ইনিশিয়েটিভ, কেয়ার বাংলাদেশ এর টেকনিক্যাল অফিসার মোঃ আলাউদ্দিন হোসেনের সঞ্চালনায় পুষ্টি সমন্বয় কমিটির দ্বি- মাসিক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির উপদেষ্টা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মঞ্জুর আলম চৌধুরী।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোহন চৌধুরী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট রিপা সিনহা, বক্তব্য রাখেন পুষ্টি কমিটির সদস্য সচিব উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মাহবুবুর রহমান, উপজেলা প্রকৌশল ইফতেখার হোসেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কেএম নজরুল, দিরাই প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুজাহিদুল ইসলাম সর্দার ,শিক্ষক প্রতিনিধি, প্রতিনিধি, কমিউনিটি সাপোর্ট গ্রুপ(কর্ণগাঁও সিসি) সভাপতি, সুসেবা নেটওয়াক।সভায় এজেন্ডা ভিত্তিক আলোচনায় ২০১৯-২০২০ পুষ্টি পরিকল্পনার অগ্রগতির পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেখানো হয়। পুষ্টি সমন্বয় কমিটির সভাপতি লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী ২০১৯-২০২০ পুষ্টি পরিকল্পনার গৃহীত কার্যক্রম বাস্তবায়নের হার যে সকল প্রতিষ্ঠানের ভালো তাদেরক বিশেষ ধন্যবাদ এবং পুষ্টি বিষয়ক কর্মসূচীর সাথে সম্পৃক্ত সকল বিভাগ গুলোর মধ্যে কার্যকর ও ফলপ্রসূ সমন্বয়করনের উপর আলোকপাত করেন।

সদস্য সচিব উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ মাহবুবুর রহমান করোনাকালীন পুষ্টি ঘাটতি দূরীকরন ও পুষ্টিমান বজায় রাখার লক্ষে ফলপ্রসূ এবং বাস্তব ভিত্তিক পুষ্টি পরিকল্পনা গ্রহন করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সঠিক ও কার্যকরী পুষ্টি পরিকল্পনা না থাকলে ভবিষ্যতে পুষ্টি মান কমে যেতে পারে ও অপুষ্ট শিশুর সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে পারে। এক্ষেত্রে তিনি উপজেলা পুষ্টি কমিটির সক্রিয় ও পুষ্টি পরিকল্পনা বাস্তবায়নে কার্যকারী ভূমিকার উপর গুরুত্ব দেন। এছাড়া সদস্যগন আলোচনায় সক্রিয় অংশগ্রহন ও মতামত প্রদান করেন।

সভাপতির বক্তব্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সফি উল্লাহ করোনাকালীন পুষ্টি অবস্থা উন্নয়নে সজাগ থাকা ও সকল দপ্তরের অংশগ্রহন এবং প্রচেষ্টার মাধ্যমে ২০২০-২১ ইং বাস্তব ভিত্তিক ও অর্জনযোগ্য পুষ্টি পরিকল্পনা প্রস্তুতের উপর গুরুত্ব আরোপ করেন।পরিশেষে সভায় কারিগরি সহায়তা প্রদানের জন্য কেয়ার বাংলাদেশ (কালেক্টিভ ইম্প্যাক্ট ফর নিউট্রিশন ইনিশিয়েটিভ) কে বিশেষ ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।