দেওলিয়া হতে পারে বার্সা!

6

স্পোর্টস ডেস্ক :: বার্সেলোনার প্রেসিডেন্ট জোসেপ মারিও বার্তামেউ পদত্যাগ করেছেন। তবে যাওয়ার আগে অনেক হিসাব-কিতাব করেছেন তিনি। কাতালান শিবির তার ওপর থেকে আস্থা হারিয়েছে। অন্যদিকে বার্সা আছে আর্থিক সংকটে। ফুটবলাররা আবার বেতন কম নিতে রাজি না।

বার্তমেউ তাই ছিলেন উভয় সংকটে। বার্সার সাবেক প্রেসিডেন্টের আমলে মেসি ক্যাম্প ন্যু ছাড়েননি। তবে তার সময়ে বার্সা দেওলিয়া হয়ে যেতে পারে বিষয়টি বুঝে শুনেই দায়িত্ব ছেড়েছেন বার্তামেউ।

এখন বার্সার অন্তবর্তীকালীন প্রেসিডেন্টের দায়িত্বে যিনি আছেন (বার্সার কোষাধাক্য) তার দায়িত্ব তিন মাসের মধ্যে নির্বাচন দিয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করা এবং বার্সার আর্থিক টানা পোড়েন থামানো। কিন্তু কাজটা সহজ নয়। কারণ জানুয়ারির মধ্যে ফুটবলারদের ১৯০ মিলিয়ন ইউরো বেতন-ভাতা দিতে হবে বার্সার।

সেটা বার্সার পক্ষে সম্ভব না! আগামী বুধবারের মধ্যে মেসি-পিকেরা অন্তত ৩০ শতাংশ বেতন কম না নিলে বার্সা তাই জানুয়ারির মধ্যে দেওলিয়া হয়ে যাবে। স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যম আরএসি-ওয়ান এমনই দাবি করেছে।

কাতালানদের বেশ কিছু ফুটবলার অবশ্য বেতন কম নেওয়ার শর্তে রাজী হয়েছেন। যেমন-গোলরক্ষক মার্ক টের স্টেগান, ডিফেন্ডার কিমেন্ট লিংলেটরা। কিন্তু লিওনেল মেসি-জেরার্ড পিকেসহ বেশ কিছু ফুটবলার বুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে জানিয়ে দিয়েছেন, তারা এক পয়সাও বেতন কম নেবেন না। বার্সার দেওলিয়া ঠেকাতে এখন তাই তাদের মন গলার অপেক্ষা।