মাধবপুরে চটপটি বিক্রেতাকে ভ্যানগাড়ি দিলো স্বচ্ছতা ফেসবুক গ্রুপ

9

মাধবপুর প্রতিনিধি::
ফেসবুক এখন আর শুধু বন্ধুদের সাথে চ্যাটিং বা ফটো শেয়ারিং এর জন্য নয় বরং ফেসবুক থেকেই পরিচালিত হচ্ছে বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম। সমাজের প্রতিনিয়ত ঘটমান নানা অন্যায় অবিচার এমনকি মাদকের বিরুদ্ধে এই ফেসবুক থেকেই সংগঠিত হয়ে রুখে দাঁড়িয়েছে হাজারো তরুণ। বর্তমান সময়ে ফেসবুকের মাধ্যমে মানবিক আবেদনের আলোড়ন দেখতে পাই আমরা প্রায়শই। এই ফেসবুক থেকেই রক্তদান থেকে শুরু করে ফান্ড রাইজিংয়ের মাধ্যমে অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর এমন নজির এখন আর বিরল নয়। এমনই ভাবে হবিগঞ্জের মাধবপুরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গড়ে উঠেছে মানবিক সংগঠন স্বচ্ছতা গ্রুপ।

ফেসবুক থেকে গড়ে উঠা সেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বচ্ছতা এর উদ্যোগে উপজেলার জগদীশপুর ইউনিয়নের সন্তোষপুর গ্রামের অসহায় যুবক আলআমিন মিয়াকে চটপটি বিক্রয়ের জন্যে গাড়ি তৈরি করে দিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে হস্তান্তর করা হয়েছে।

শনিবার (২৮ নভেম্বর) বিকেলে উপজেলার জগদীশপুর জে. সি. হাইস্কুল এন্ড কলেজ মাঠে আনুষ্ঠানিকভাবে অসুস্থ যুবক আল আমিনের হাতে চটপটি বিক্রির ভ্যানগাড়ি তুলে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির কেন্দ্রীয় যুবলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

মাওলানা আসাদ আলী ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক মঈন উদ্দিনের সভাপতিত্বে স্বচ্ছতার সদস্য সাংবাদিক হামিদুর রহমানের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির জগদীশপুর জে. সি. হাইস্কুল এন্ড কলেজ এর ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শিক্ষক সৈয়দ মোদরেকুল হোসেন।
বক্তব্য দেন বহরা ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সৈয়দ মসিউর হোসেন, মাধবপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সেক্রেটারি অলিদ মিয়া, মিঠু আনোয়ার, ইউপি সদস্য নারায়ণ কর্মকার, মো. শাহজাহান খোকন,আলমগীর হোসেন, শাহজাহানপুর ইউপি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জয়, সাংবাদিক তোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী, লিটন বিন ইসলাম, ইয়াছিন তন্ময়, স্বচ্ছতার সদস্য আল আমিন ইসলাম, শেখ ইমন আহমেদ, নজরুল ইসলাম তুহিন, লোকমান শাহ, খাইরুল ইসলাম খান, মো. আশিকুল ইসলাম শাহীন, মানোয়ার হোসেন সেলিম, মামুন মিয়া, শামছু উদ্দিন, সুলতান আলম, আ. মোমিন, সুজন আলম, সোহাগ মিয়া প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় যুবলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন বলেন, যুব সমাজ দেশের সচেতন নাগরিক। তাই জাতি গঠনে তাদের রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। দেশের প্রতিটি বিষয়ে জানা-বুঝা অর্জন এবং মতামত প্রদানের মধ্যে তারা জাতির ভবিষ্যৎ কর্ণধার হিসেবে গড়ে ওঠে। সততা, আদর্শ, নিষ্ঠা, দেশপ্রেমে উদ্ধুদ্ধ যুবরাই জাতির সেরা সম্পদ। জাতির সমৃদ্ধি,সম্মান ও আত্মত্যাগের মধ্যেই জাতীয় অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখতে পারে।

সবুজ সিলেট/২৮ নভেম্বর/শামছুন নাহার রিমু