করোনার কারণে এবার স্ত্রীসহ হাসপাতালে অভিনেতা ফারুক

9

বিনোদন ডেস্ক ::
আকবর হোসেন পাঠান ফারুক ও ফারহানা পাঠান দম্পতি আগেই করোনা পজিটিভ হন নেতা-অভিনেতা সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। এক সপ্তাহ চিকিৎসা নিয়ে রাজধানীর একটি হাসপাতাল থেকে বাসায় ফেরেন। বাসায় ফিরে থিতু না হতেই ফের হাসপাতালে যেতে হলো চলচ্চিত্রের এই ‌‘মিয়াভাই’কে।
কারণ, এবার তার স্ত্রী ফারহানাও করোনায় আক্রান্ত হলেন। এর আগে মেয়েসহ ফারুক করোনা পজিটিভ ছিলেন। পরে মেয়ে ফারিহার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল।

ধারণা করা হচ্ছে, স্বামী-সন্তানের সেবা করতে গিয়ে ফারহানা পাঠান নিজেও আক্রান্ত হলেন করোনায়। ৩ ডিসেম্বর করোনা পরীক্ষা করা হলে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। অন্যদিকে মেয়ের করোনা নেগেটিভ হলেও স্বামী ফারুক এখনও করোনামুক্ত হননি। এখনও পজিটিভ!

ফলে দুজনেই সম্প্রতি একসঙ্গে ভর্তি হয়েছেন রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালের করোনা ইউনিটে।
ফারহানা পাঠান মুঠোফোনে বলেন, ‘আমার আসলে সিরিয়াস কিছু হয়নি। স্বাদ-ঘ্রাণ পাচ্ছিলাম না। করোনা টেস্ট করালে রিপোর্ট পজিটিভ আসে। ফারুকও ভালো আছেন, কিন্তু তার রিপোর্ট এখনও পজিটিভ। তাই আমরা দুজনেই হাসপাতালে ভর্তি হলাম। আমাদের মেয়ে ফারিহা বাসাতেই আছে। ওর নেগেটিভ এসেছে। সবাই আমাদের জন্য দোয়া করবেন।’

গত ১৬ নভেম্বর ফারুকের করোনা পজিটিভ আসে। ভর্তি হন রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে। সুস্থবোধ করায় ২৪ নভেম্বর তিনি বাসায় ফেরেন।

উল্লেখ্য, দুই মাস সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা শেষে অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে ঢাকায় ফেরেন ফারুক। সেখানে যাওয়ার আগেও তার নিয়মিত জ্বর আসতো। যার কারণ বের করতে পারেনি দেশের হাসপাতালগুলো। গত ১৩ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য ফারুককে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সাত বছর ধরে সিঙ্গাপুরের এ হাসপাতালেই তিনি নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করিয়ে আসছেন।

হাসপাতালটি জানায়, এই বরেণ্য টিবি রোগে আক্রান্ত। সুস্থ হওয়ার পর সম্প্রতি দেশে ফেরেন তিনি। এরপরই করোনায় আক্রান্ত হন।

পাঁচ দশক ধরে চলচ্চিত্রের পর্দায় কাজ করেছেন ফারুক। অভিনয় ছাড়ার পর গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে ঢাকা-১৭ আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

সবুজ সিলেট/ এস মায়াজ আহমদ তালহা

  •