ওসমানীনগরে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বুদ্ধিজীবী দিবস পালন

9

ওসমানীনগর প্রতিনিধি:: সিলেটের ওসমানীনগরে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকালে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলার বুরুঙ্গা গনকবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে উপজেলার মঙ্গলচন্ডী নিশিকান্ত মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের হল রুমে সম্পন্ন হয় আলোচনা সভা।

উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা মোছা. তাহমিনা আক্তার এর সভাপতিত্বে বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সালের ১৪ ডিসেম্বর বাংলাদেশে স্বাধীনতা যুদ্ধের চূড়ান্ত বিজয়ের, প্রাক্কালে পাকিস্তানিরা, তাদের সাথে রাজাকার, আল বদর, আল শামস বাহিনী বাংলাদেশের অসংখ্য শিক্ষাবিদ, গবেষক, চিকিৎসক, প্রকৗশলী, সাংবাদিক, কবি ও সাহিত্যিকদের চোখ বেঁধে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে তাদের নির্যাতনের পর হত্যা করে। স্বাধীন বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করতে পরিকল্পিতভাবে এ হত্যাযজ্ঞ সংগঠিত হয়। বিজয়ের দুই দিন আগে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী তাদের পরাজয় নিশ্চিত জেনে লিপ্ত হয়ে ছিল ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রে। স্বাধীনতাকামী বাঙালি জাতি যেন মেধায়- মননে মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে, সে জন্য তারা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান বুদ্ধিজীবীদের হত্যায় মেতে ওঠে। বিজয় উৎসবের আগে এই দিনটিতে জাতি গভীর বেদনার সঙ্গে স্মরণ করে আসছে স্বাধীনতার জন্য আত্মদানকারী শহীদ বুদ্ধিজীবীদের।

আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আতাউর রহমান, সহ-সভাপতি আব্দাল মিয়া, উমরপুর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া,সাধারণ সম্পাদক আফজালুর রহমান চৌধুরী নাজলু, সাংগঠনিক সম্পাদক আনা মিয়া,থানার অফিসার ইনচার্জ শ্যামল বনিক, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা স্বপন কুমার চক্রবর্তী, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নেয়ামত শরিফ, মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফাহিমা খানম,উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শিপন আহমদ, উপজেলা স্বেচ্ছা সেবকলীগের সভাপতি চঞ্চল পাল, সমাজ সেবা কর্মকর্তা জয়তী দত্ত, আনসার বিডি নাজমা বেগম, মঙ্গলচন্ডী নিশি কান্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শহিদ হাসান। উক্ত সভায় উপজেলার রাস্তাঘাটসহ সরকারী গুরুত্বপূর্ন স্থাপনাগুলো এলাকার শহিদ মুক্তিযোদ্ধাদের নামানুসারে নামকরনের প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে জোড় দাবি জানানো হয়। সভায় উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দসহ রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।