শ্বশুরবাড়িতে গৃহবধূকে ‘নির্যাতনের পর হত্যা’

2

বিয়ের ১০ মাস না পেরোতেই ফেনী শহরের রামপুরে মাহমুদা আক্তার শিরীন (২৩) নামে এক গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। মাহমুদার স্বজনদের দাবি, স্বামী এবং শ্বশুরবাড়ির লোকজন তাকে নির্যাতন করে হত্যা করেছে।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টার দিকে ফেনীর রামপুরের তনু পাটোয়ারীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। মাহমুদা দাগনভূঞার রাজাপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রামচন্দ্রপুরের ছলু ভূঁঞাবাড়ির অহিদুর রহমান ও আলেয়া বেগমের মেজো মেয়ে। রাত ১০টার দিকে খবর পেয়ে পুলিশ ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় পুলিশ ওই গৃহবধূর শ্বশুর ও শাশুড়িকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ফেনী শহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ সুদ্বীপ রায়। তবে তার স্বামী শাহজালাল শাহীন ও ননদ খোদেজা বেগম পালিয়েছেন বলে তিনি জানান।

সুদ্বীপ রায় জানান, আমরা এসে বিছানার উপরে চিৎ করা অবস্থায় মাহমুদার লাশ পড়ে থাকতে দেখি। তার গায়ে কম্বল জড়ানো ছিল। তার গলার দুইপাশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করে বলা যাবে। পুলিশ প্রাথমিক সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ তদন্ত করছে।

সবুজ সিলেট/ ১৮ ডিসেম্বর/ হাসান