যুক্তরাষ্ট্রে পারিবারিক ইমিগ্রেশন ভিসা চালুর দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন

14

সবুজ সিলেট ডেস্ক :: যুক্তরাষ্ট্রে বন্ধ থাকা পারিবারিক ইমিগ্রেশন ভিসা চালুর দাবিতে সিলেটে র‌্যালি ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ভিসা প্রত্যাশীরা।

শুক্রবার বিকেলে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ইউএসএ ইমিগ্র্যান্ট ভিসা পেন্ডিং কেস হোল্ডার্স কমিউনিটি ফর্ম বাংলাদেশ’র উদ্যোগে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন,যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সদ্য পরাজিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ২২ এপ্রিল এক নির্বাহী আদেশে যুক্তরাষ্ট্রে দীর্ঘদিন যাবৎ চলমান ইমিগ্রেশন ভিসার কার্যক্রমের উপর নিষেধাজ্ঞা দেন।

এরপর থেকে গত আট মাস ধরে ফ্যামিলি ভিসা প্রদান কার্যক্রম বন্ধ থাকায় বাংলাদেশের প্রায় ২০ হাজার ভিসাপ্রার্থী ভিসা না পেয়ে দীর্ঘসূত্রিতায় পড়েছেন।

বাংলাদেশ সহ বিশ্বের আরো ৩ লাখ মানুষের ভিসার কেস স্থবির হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় পরিবারসহ বিভিন্ন মানুষ উদ্বেগ ও উৎকন্ঠায় রয়েছেন ভিসা প্রার্থীরা।

কোন কোন ভিসাপ্রার্থী গত ১৪-১৫ বছর যাবত ভিসা ফিস জমা দিয়ে ভিসার জন্য অপেক্ষমান আছেন।

প্রায় ৮ মাস যাবত বন্ধ থাকা পারিবারিক ইমিগ্রেশন ভিসা কার্যক্রম দ্রুত চালু করার জন্য বাংলাদেশ সরকার, মার্কিন প্রেসিডেন্ট, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং যুক্তরাষ্টের দুতাবাসের নিকট প্রয়োজনীয় দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য এবং গ্রিণ কার্ড ও ভিসা প্রসেসিং আরো সহজীকরণ করার জন্য মানববন্ধন থেকে দাবি তোলা হয়।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে একটি র‌্যালি বের করা হয়।

ইউএসএ ইমিগ্র্যান্ট ভিসা পেন্ডিং কেস হোল্ডার্স কমিউনিটি ফর্ম বাংলাদেশ’র এডমিন মোঃ মিনহাজ উদ্দিনের সঞ্চালনায় উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, তরুন কুমার ধর, নেহাল হাসনায়েল, ফাতেহা শিরিন, মোঃ ফাইজুল ইসলাম,কামরুল ইসলাম বাবু, মুহিত চৌধুরী, মাহবুবুর রহমান, আরাফাত চৌধুরী, নাজমুল হক, লিটন ঘোষ, মোমিনুল হক ফাহিম, গৌতম দত্ত, রযহান আহমেদ প্রমুখ।

সার্বিক সহযোগীতায় ছিলেন টেপ সলুয়েশন (সফটওয়্যার টেষ্টার ইঞ্জি:) এবং সিটি ওভারসিজ সার্ভিস ট্রাভলেস।

আমেরিকার ইমিগ্রেশন ভিসায় অপেক্ষমান ব্যক্তিদেরকে বিভিন্ন তথ্য দিয়ে ফ্রি সেবা প্রদান করে সহযোগীতা করার লক্ষ্যে ২০১৭ সালের ২ জুন গঠন করা হয় ‘ইউএসএ ইমিগ্র্যান্ট ভিসা পেন্ডিং কেস হোল্ডার্স কমিউনিটি ফর্ম বাংলাদেশ’।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে এপর্যন্ত বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ১০টি ইমিগ্রেশন সেমিনার এবং প্রায় ৮০টি মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে। সংগঠনটির সদস্য সংখ্যা প্রায় ১২ হাজার।