ক্যাম্প ন্যুতে ভালোই আছেন মেসি

8

স্পোর্টস ডেস্ক :: বার্সেলোনার সঙ্গে লিওনেল মেসির চুক্তি আছে মাস ছয়েক। এখনও নতুন চুক্তির ব্যাপারে সম্মত হননি আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি। সামনে নির্বাচন থাকায় বার্সাও দেয়নি তেমন প্রস্তাব। ওদিকে কাতালানদের সঙ্গে লিও’র সম্পর্ক ছিন্ন হচ্ছে ধরে নিয়ে পিএসজি-ম্যানসিটি হাত বাড়িয়ে বসে আছে। কিন্তু সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, ক্যাম্প ন্যুতে মেসি ভালোই আছেন। মৌসুমে সম্ভাব্য সবকিছুর জন্য লড়ে যাওয়ার জোর চেষ্টা চালাচ্ছেন।

একক ক্লাবের হয়ে পেলের পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি গোল করার রেকর্ড গড়া মেসি লা সেক্সাটাকে বলেছেন, ‘সত্য হলো, আমি এখন বার্সেলোনায় ভালোই আছি। এটাও সত্য যে, গত গ্রীষ্মে ক্যাম্প ন্যুতে আমার খুবই খারাপ সময় গেছে। যেভাবে মৌসুমটা শেষ হয়েছিল, তাতে অনেক কিছুই ঘটে গিয়েছিল। ব্যুরোফ্যাক্স বলেন কিংবা অন্য যা কিছু। তবে মৌসুম শুরুর আগে আমি সেগুলো পেছনে ফেলে এসেছি।’

গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগে কাতালানরা ৮-২ গোলে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে বিধ্বস্ত হয়। এরপরই চাউর হয় মেসির ক্লাব ছাড়ার। ব্যুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে মেসি বার্সার তৎকালীন সভাপতি জোসেন মারিও বার্তামেউকে তার ক্লাব ছাড়ার কথা জানান। কিন্তু বার্তমেউ কিছুতেই মেসিকে ক্লাব ছাড়তে দেননি। মেসি তাই ক্ষোভ প্রকাশ করেন ক্লাব প্রেসিডেন্টের ওপর। শেষ পর্যন্ত বার্তামেউকে বার্সা ছাড়তে হয়েছে। বার্সা শিবিরেও এসেছে বেশ কিছু পরিবর্তন। মেসিও নতুন মৌসুম তার সেরাটা দিয়ে শুরু করেছেন।

এখন খেলায় তার পূর্ণ মনোযোগ জানিয়ে বলেছেন, ‘আমি বার্সায় থাকতে পেরে উচ্ছ্বসিত। সামনে যা কিছু আছে তার জন্য পুরোটা দিয়ে লড়াই করতে মুখিয়ে আছি। জানি যে, ক্লাব কিছুটা কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া ক্লাব নানান বিষয় নিয়ে কিছুটা সংকটের মধ্যেও আছে। সেগুলো মাথায় রেখেই আমি এখন সামনে তাকাচ্ছি।’

মেসির বার্সায় থেকে যাওয়ার ইঙ্গিত নিশ্চিতভাবেই মন ভেঙেছে ম্যানসিটি, পিএসজি, ইন্টার মিলানের মতো ক্লাবের। তারা বিশ্বের অন্যতম সেরা ফুটবলার মেসিকে দলে পেতে মুখিয়ে আছে। ওদিকে বার্সার প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হুয়ান লাপোর্তা জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট হলে সবার আগে মেসির সঙ্গে নতুন চুক্তি নিয়ে কথা বলবেন। অন্য এক প্রেসিডেন্ট প্রার্থী অবশ্য কড়া ভাষায় বলেছেন, ক্যাম্প ন্যুতে থাকতে হলে বেতন কম নিতে হবে মেসির। সব মিলিয়ে কাতালান শিবিরে থেকে যাওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ২৪ জানুয়ারি বার্সার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পরেই মেসি নেবেন বলে মনে হচ্ছে।