বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে নতুন প্রজন্ম: এমপি রতন

55

জামালগঞ্জ প্রতিনিধি ::  জামালগঞ্জে বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত হয়ে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বে নতুন প্রজন্ম। আওয়ামী লীগ সরকার উন্নয়নের সরকার। নির্বাচনের আগেই ফেনারবাঁক ইউনিয়ন পরিষদ বিভাজন হবে। গজারিয়া থেকে আমানিপুর হয়ে বিষ্ণুপুর পর্যন্ত বেড়িবাঁধের ব্যবস্থা করা হবে। ৫ কিলোমিটার রাস্তা পাকাকরণ হবে এই বছরেই ইনশাল্লাহ। হাওর এক্সেস রোড অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। ফেনারবাঁক থেকে ব্রিজ হয়ে লালবাজার পর্যন্ত রাস্তা যাবে। নবীন চন্দ্র স্কুল থেকে ভান্ডা মাকড়খলা হয়ে ইসলামপুর বাজার পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণ করা হবে। শ্রীমন্তপুর, সুকদেবপুর, যশমন্তপুরের বিদ্যুৎ নতুন বছরের প্রথম সপ্তাহেই উদ্বোধন করা হবে। আগামী জানুয়ারি মাসে মন্নানঘাট বাজারে পল্লী বিদ্যুতের সাবস্টেশন করা হবে। সাচনা বাজার সাবস্টেশন কয়েকদিনের মধ্যেই জায়গা নির্ধারণ করা হবে। মোহনগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জ রেললাইনের কাজ করতে এই সরকার আপ্রাণ কাজ করে যাচ্ছে। মন্নানঘাট বাজারে হাঁস প্রজনন কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। হাওরে আবাসিক স্কুলের জন্য প্রকল্প নেওয়া হচ্ছে। উপজেলা চেয়ারম্যানের সকল দাবির সাথে একমত হয়ে সবাই মিলেমিশে কাজ করব। হাওরে বেড়িবাঁধের দিকে যার যার অবস্থান থেকে সহযোগিতা করবেন। দুষ্ট এবং কুচক্রী মহল থেকে দূরে থাকবেন। ৭ কোটি ৭০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৬৫২ জনকে বিদ্যুৎ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এই কথাগুলো বলেন।

গতকাল বিকেলে ফেনারবাঁক ইউনিয়নের প্রত্যন্ত অঞ্চল আমানিপুর বাজারে রাজেন্দ্রপুর, বিষ্ণুপুর, নিধিপুর, আমানিপুর, আলীপুর, মোড়লপুর ও ফাজিলপুর গ্রামের বিদ্যুৎ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফেনারবাঁক ইউপি চেয়ারম্যান করুণা সিন্ধু তালুকদার। ছাত্রনেতা সুমন চৌধুরীর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইকবাল আল আজাদ, ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হোসেন রুকন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিশ্বজিত দেব, সুনামগঞ্জ জেলা পল্লী বিদ্যুতের এজিএম মো. নূরুল ইসলাম, উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী আব্দুল সাত্তার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোহাম্মদ আলী, সাধারণ সম্পাদক এম নবী হোসেন, ধর্মপাশা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমদ বিলকিস, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আব্দুল মুকিত চৌধুরী, সহ সভাপতি মতিউর রহমান, সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জীতেন্দ্র তালুকদার পিন্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কাজী আশরাফুজ্জামান। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন বাঁদাঘাট কলেজের প্রভাষক লিটন চন্দ্র সরকার, মধ্যনগর উপজেলা বাস্তবায়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক অমরেশ দাস, পাইকরহাঁটি ইউপি চেয়ারম্যান মো. ফেরদৌস রহমান, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক আরিফ আলম লিমন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক সভাপতি আবু তাহের তালুকদার, ফেনারবাঁক ইউপি সদস্য মো. আসাদ মিয়া, সাবেক ইউপি সদস্য রঞ্জন তালুকদার। পরে লাইট জ্বালিয়ে বিদ্যুতের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি।