ইউরোপের ৮ দেশে করোনার নতুন ধরন শনাক্ত: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

6

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ::
ইউরোপের আটটি দেশে ভিওসি-২০২০১২ নামে বিবর্তিত নতুন ধরনের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। ইউরোপে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আঞ্চলিক পরিচালক হানস ক্লুগ এ খবর জানিয়েছেন।

টুইটারে দেয়া এক পোস্টে ক্লুগ লিখেছেন, ‘হু ইউরোপিয়ান অঞ্চলের আটটি দেশে কোভিড-১৯ এর নতুন ভ্যারাইটি ভিওসি-২০২০১২/০১ শনাক্ত করা হয়েছে।’

হানস ক্লুগ বলেন, ‘এই ভ্যারাইটি কোভিড-১৯ এর চেয়ে দ্রুত ছড়ায় এবং অপেক্ষাকৃত কম বয়সীদের সংক্রমিত করে। এর প্রভাব নিরুপণে গবেষণা চলমান রয়েছে, এ সময়ে সতর্কতা অত্যন্ত জরুরি।’

সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক পড়া এবং ভিড় এড়িয়ে চলাসহ বিদ্যমান সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদারের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

গত ১৪ ডিসেম্বর ব্রিটেনে একটি নতুন ধরণের করোনাভাইরাস স্ট্রেন শনাক্ত করেছেন ব্রিটিশ বিজ্ঞানীরা। দক্ষিণ-পূর্ব ইংল্যান্ডে উচ্চ সংক্রমণের জন্য দায়ী হতে পারে।

১৯ ডিসেম্বর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, করোনার এই নতুন স্টেন ৭০ শতাংশ বেশি সংক্রামক হতে পারে।

করোনাভাইরাসের নতুন এই ধরনের সংক্রমণ ঠেকাতে একে একে ইউরোপের দেশগুলো যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করেছে। এসব দেশের মধ্যে রয়েছে নেদারল্যান্ডস, ফ্রান্স, আয়ারল্যান্ড, জার্মানি, বেলজিয়াম, ইতালি ও তুরস্ক। ভারতও যুক্তরাজ্য থেকে আসা বিমানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে।

যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেইনটি আগের স্ট্রেইনটির তুলনায় ৭০ শতাংশ বেশি গতিতে ছড়ায় বলে জানানো হয়েছে। করোনার নতুন এই ধরনের সংক্রমণে বিশ্বে উদ্বেগ বেড়েছে। নতুন ধরন ঠেকাতে টিকা কতটা কার্যকর হবে, তা নিয়েও উদ্বেগ ছড়িয়েছে। তবে গবেষকেরা প্রাথমিকভাবে বলছেন, করোনার নতুন ধরন প্রতিরোধেও টিকা কার্যকর।

সবুজ সিলেট/ এস মায়াজ আহমদ তালহা