আমাদের দায়িত্ব আন্তরিকতার সাথে পালন করলে সমাজ অনেক দূর এগিয়ে যাবে- সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার

7

সবুজ সিলেট ডেস্ক

আমরা অর্থনৈতিকভাবে অনেকদূর এগিয়ে যাচ্ছি এই ধারাকে বজায় রাখতে সুশীল সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে সেক্ষেত্রে রোটারী ক্লাবের মতো অন্যান্য সমাজসেবামূলক ক্লাবগুলো অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। আমরা আশাবাদী ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত দেশে পরিণত হবে।

সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি হোটেলে রোটারি ক্লাব অব জালালাবাদের বার্ষিক সভা ২০২০ এ প্রধান অতিথির ভাষণে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মশিউর রহমান এনডিসি এ কথা বলেন, তিনি আরো বলেন আমাদের যার যা দায়িত্ব তা যদি আমরা সততা স্বচ্ছতা ও আন্তরিকতার সাথে পালন করি তাহলে সমাজ অনেকদূর এগিয়ে যাবে। তিনি জালালাবাদ রোটারী ক্লাবের উদ্দেশ্যে বলেন আপনারা মানবতার সেবায় নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছেন তাতে সমাজ অনেক উপকৃত হচ্ছে। বিভাগীয় কমিশনার বলেন দেশে রোটারি ক্লাব সহ সমাজ সেবামূলক সংগঠন গুলো যদি জনগণকে যতবেশী তাদের কাজে সম্পৃক্ত করতে পারবে ততবেশি দেশের উন্নয়নে জনগণের উন্নয়নে বিরাট ভূমিকা রাখবে, পাশাপাশি মানুষ তত আলোকিত,মননশীল এবং রুচিশীল হবে।মোঃ মশিউর রহমান বলেন প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় আমাদের দেশ সাফল্য অর্জন করতে পেরেছে যা আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত। রোটারী ক্লাব অব জালালাবাদের ২০২০-২১ রোটাবর্ষের প্রেসিডেন্ট বিশিষ্ট শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা.এম জাকারিয়া হোসেনের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পিডিজি সহিদ আহমেদ চৌধুরী,ইপিডিজি লেঃ কর্নেল(অব.)এম আতাউর রহমান পীর, ক্লাব ট্রেইনার রোটাঃ মাহবুব সোবহানী চৌধুরী এসিস্টেন্ট গভর্নর প্রফেসর শামসুল ইসলাম,পিপি মোঃ মনির উদ্দিন চৌধুরী,পিপি হানিফ মোহাম্মদ,পিপি মাসুদ আহমদ চৌধুরী, রোটাঃফিরোজা আখতার,রোটাঃ মনজুর আল বাসিত,রোটাঃ আনহার সিকদার,রোটাঃ মিজানুর রহমান,রোটাঃ মোঃ আসাদুজ্জামান সায়েম,ইউকে’র মিডিয়া ব্যক্তিত্ব সাংবাদিক মিছবাহ জামাল, রোটাঃ আব্দুল ওয়াদুদ তাফাদার,রোটাঃ জামিল আহমদ চৌধুরী,রোটাঃ মনসুর আহমেদ প্রমুখ।

এর আগে প্রথম পর্বে পিপি মোঃ মোস্তফা কামাল কর্তৃক কোরআন তেলাওয়াত পরে জাতীয় সঙ্গীত এবং রোটাঃ তানিশা রুমার রোটারী ইনভোকেশন পাঠের পর জালালাবাদ রোটারী ক্লাবের ২০২১-২২ রোটাবর্ষের ২১ সদস্য বিশিষ্ট বোর্ড অব ডিরেক্টর নাম ঘোষণা করেন ক্লাব মনোনীত প্রিজাইডিং অফিসার পিপি আলহাজ্ব এম আতাউর রহমান।

শুরুতে স্বাগত ভাষণ প্রদান করেন তানভির চৌধুরী,সেক্রেটারি রিপোর্ট পেশ করেন জেএমএইচজে ফেরদৌস এবং ট্রেজারার রিপোর্ট প্রদান করেন রোটা আনহার সিকদার।

সভাপতির ভাষণে ডা. এম জাকারিয়া হোসেন বলেন মহামারীর সময় করোনাভাইরাস কে উপেক্ষা করে রোটারী ক্লাব অব জালালাবাদ পিপিই এবং মাস্ক বিতরণ সহ অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে, তিনি বলেন আমাদের ক্লাব প্রাতিষ্ঠানিক ভিত্তি,ব্যবসায় ও পেশাদারী পর্যায়ে উচ্চ নৈতিক মূল্যবোধ গঠন এবং ফেলোশিপ প্রদাননের মহান ব্রত নিয়ে আদর্শ সেবা প্রদান কল্পে যাচ্ছে কাজ করে যাচ্ছে।

ক্যাপ্সিশনঃ জালালাবাদ রোটারি ক্লাবের বার্ষিক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদান করছেন বিভাগীয় কমিশনার মোঃ মশিউর রহমান এনডিসি।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

সবুজ সিলেট/ হাসান