বারান্দায় কাপড় টানালেই ৩০০ দিনার জরিমানা!

4

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
অবাক এক সমস্যায় পড়েছে কুয়েত। নানা সতর্কতা দিয়েও বারান্দায় কাপড় শুকাতে দেয়ার রীতি বন্ধ করা যায়নি। বিশেষ করে যারা প্রবাসী কর্মী এবং যেগুলো ব্যাচেলর বাসা তারা সতর্কতা উপেক্ষা করেই বারান্দায় ভেজা কাপড় শুকাতে দেন। এই কাজ বন্ধ করতে কঠোর হয়েছে কুয়েতের সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।

কুয়েত সিটি পৌরসভা শাখায় গণ-পরিষ্কার ও রাস্তাঘাট বিভাগের পরিচালক, মিশাল আল-আজমী প্রবাসীদের অবহিত করেছেন যে, বারান্দা ও জানালায় কাপড় বা কার্পেট ঝুলানো কঠোরভাবে নিষিদ্ধ, যারা এই আইন লঙ্ঘন করবে তাদেরকে ৩০০ দিনার পর্যন্ত জরিমানা দিতে হতে পারে।

কুয়েতের সংবাদমাধ্যম আল রাই এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কুয়েতের বিভিন্ন অঞ্চলে, বিশেষত রাজধানীর ব্যাচেলর বাসাগুলোর বারান্দায় এমন কুৎসিত দৃশ্য লক্ষ্য করা যায়। তারা কেবলমাত্র বারান্দায় নয়, তাদের বিল্ডিংয়ের সামনে এবং রাস্তায়ও কাপড় শুকাতে দেয়।

আল আজমী বিবৃতিতে বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে পৌরসভা এই ঘটনা নিয়ন্ত্রণে সফল হয়েছে। বেশিরভাগ বাসিন্দারই আইন সম্পর্কে জানা ছিল না। তবে জানার পর বাসিন্দাদের কাছ থেকে ভালো সাড়া মিলেছে।

খবরে বলা হয়েছে, প্রতি ২০টি বিল্ডিংয়ের মধ্যে একটি অ্যাপার্টমেন্টে বারান্দায় কাপড় দেয়ার এই আইন লঙ্ঘন করে। দেশটির স্বাস্থ্যবিধি নিয়ন্ত্রণের ৪ নং অনুচ্ছেদে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে, কাপড়, কার্পেট বা এমনকিছু শুকানো বা অন্য কোনো উদ্দেশ্যে বারান্দায়, রাস্তায় বা পাবলিক প্লেসে ঝোলানো যাবে না।

এই আইন অমান্য করলে সর্বনিম্ন ১০০ দিনার এবং সর্বোচ্চ ৩০০ দিনার জরিমানার বিধান রয়েছে। কর্তৃপক্ষ নিয়মিত বিভিন্ন অঞ্চলে এ বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করে। যদি কেউ এই কাজ করে থাকেন তাহলে পরিদর্শক ভবনের নিরাপত্তারক্ষীকে অবহিত করে প্রতিবেদন তৈরি করেন। প্রথমবার আইন ভাঙলে প্রতিশ্রুতি নেয়া হয়। ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হয়।

  •