কানাইঘাটে শিশুদের ঝগড়ার বিচার চাইতে গিয়ে মা লাঞ্ছিত

10


কানাইঘাট প্রতিনিধি ::
কানাইঘাটে শিশুদের ঝগড়ার বিচার চাইতে গিয়ে জাকিরা নামের এক বৃদ্ধ মা উল্টো লাঞ্ছনার স্বীকার হলেন। তিনি উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পূর্ব ইউপি’র ভাটি বারাপৈত মাঝপাড়া গ্রামের আব্দুর রহিম (আনইর) স্ত্রী। শনিবার সকাল ১১টায় সরেজমিনে জানা যায় বুধবার বিকালে একই গ্রামের ময়নুল হকের শিশুপুত্র শাকিবের সাথে খেলার মাঠে ঝগড়া হয় আব্দুর রহিমের শিশুপুত্র সায়েমের। এতে শিশু শাকিবের পক্ষ নিয়ে তার মা নাছিমা বেগম ও বড় ভাই পারবেজ শিশু সায়েমকে মারধর করলে সে কেঁদে কেঁদে বাড়িতে এসে তার মা জাকিরাকে এসব বলে দেয়। এতে জাকিরা বেগম তার শিশুপুত্র সায়েমকে মারধরের বিচার চাইতে ময়নুল হকের বাড়িতে গেলে তিনি উল্টো প্রতিপক্ষের হাতে লাঞ্ছিত হন। এক পর্যায়ে শিশু শাকিবের স্বজন জালাল উদ্দিনের পুত্র শাহান, মৃত মুহিব উদ্দিনের পুত্র তারেক, জয়নুল আবেদীন, মৃত মুবারক আলীর পুত্র আব্দুল লতিফ সহ বাড়ির মহিলারা জাকিরা বেগমকে অবরুদ্ধ করে রাখে। খবর পেয়ে আশপাশের লোকজনসহ গ্রামের মুরব্বী জহির উদ্দিন ও প্রতিবেশী মস্তাক আহমদ ঘটনাস্থলে গিয়ে জাকিরা বেগমকে তাদের হাত থেকে উদ্ধার করেন। এ ব্যাপারে জালাল উদ্দিনের ভাই প্রত্যক্ষদর্শী জহির উদ্দিন ও প্রতিবেশী মস্তাক আহমদ জানান শিশুদের ঝগড়ার বিচাই চাইতে ঐদিন সন্ধ্যায় জাকিরা বেগম ময়নুল হকের বাড়িতে গিয়েছিলেন। কিন্তু সেখানে তিনি লাঞ্ছনার স্বীকার হয়ে তাদের হাতে অবরুদ্ধ হলে তারা আশপাশের লোকজনের সহায়তায় জাকিরা বেগমকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন। এ দিকে লাঞ্ছনার স্বীকার জাকিরা বেগম জানিয়েছেন তিনি তার শিশুপুত্র সায়েমের মারধরের বিচার পাওয়া তো দুরের কথা উল্টো তিনি শীলতাহানির স্বীকার হয়েছেন। বর্তমানে এসব ঘটনা ভিন্নদিকে প্রবাহিত করার জন্য প্রবাসী ময়নুলের চতুর স্ত্রী নাছিমা বেগম নতুন নাটক সাজিয়ে কানাইঘাট থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। তবে থানার এএসআই বিকাশ চন্দ্র সরকার জানিয়েছেন বিষয়টি তদন্তাধীন রয়েছে।

  •